আর্তুর র‌্যাঁবো | মুম রহমান

আর্তুর র‌্যাঁবো | মুম রহমান

🌱

আর্তুর র‌্যাঁবো

জ্যাঁ নিকোলাস আর্তুর র‌্যাঁবোকে (১৮৫৪-১৮৯১) বিশ্ব কবিতার রাজপুত্র বলা হয়। মাত্র ৩৭ বছর বেঁচেছিলেন তিনি। লিখেছেন খুব কম। ২১ বছর বয়সেই অভিমান করে লেখালেখি ছেড়ে দেন।  কিন্তু আধুনিক কবিতায় র‌্যাঁবো আজ অবস্মরণীয় নাম। তার কবিতা আর্দ্রে ব্রেতা, ডিলান টমাস, মার্ক বোলান, জ্যাক ক্যারুয়াক, ভ্লাদিমির নবোকভ, বব ডিলান, হেনরি মিলার, জিম মরিসনের মতো ব্যক্তিদের কাজকে সরাসরি প্রভাবিত করেছে। প্রতীকবাদী কবি র‌্যাঁবো ব্যক্তি জীবনে ভীষণ রুক্ষ, মেজাজি ছিলেন। আরেক বিখ্যাত কবি পল ভেলরির সঙ্গে তার সম্পর্ক বিশ্ব সাহিত্যে আলোচিত।

🔅

তারারা কেঁদেছিলো গোলাপি রঙের গানের বাণীতে

তারারা কেঁদে ছিলো গোলপি কান্না তোমার কর্ণ মর্মমূলে

অসীম আবর্তিত হয়েছিলো তোমার গ্রীবা থেকে কটিদেশ পর্যন্ত

সমুদ্র চূর্ণ করেছে পিঙ্গল আভা তোমার সিঁদুর রঙা স্তনবৃন্তে

আর পুরুষ ঝরায় কৃষ্ণ রক্ত তোমার অখন্ড পাঁজরে। 

মাতাল সহিস

না-ধোঁয়া 

পানীয়:

ঝিনুকের চকচকে খোল

দেখে :

 

তিক্ত

আইন,

বাহন

পড়ে যায়!

 

নারী

গড়িয়ে পড়ে

কটিদেশে

 

রক্তপাত:

ফোঁপানি!

চিৎকার।

 

প্রস্থান

সব দেখা হলো…দৃষ্টি প্রতিধ্বণিত হয় সকল বাতাসে।

সব শোনা হলো… দূর নগরের শব্দ, বিকালে, সৌরালোবে এবং সদাই।

সব জানা হলো… আহা বেদনা! আহা দৃষ্টি! এই বুঝি জীবনের সমাপ্তি।

প্রস্থান করি প্রেম ও উজ্জ্বল শব্দের মাঝে।

অনুধ্যান

Leave a Reply

Next Post

স্যঁ জন পার্স | মুম রহমান

Wed Aug 5 , 2020
স্যঁজন পার্স | মুম রহমান ১৯৬০ সালে কবিতার জন্যে নোবেল পুরস্কার পান সঁ জন পার্স। তার পিতৃদত্ত নাম এলেক্স স্যঁ লেগার। ফরাসী এই কূটনৈতিক জীবনের দীর্ঘ সময় আমেরিকাতেই কাটিয়েছেন। চীনে থাকার সময় তিনি দীর্ঘ কবিতা আনাবিসিস লেখেন যা সমালোচক-পাঠক সবাইকে দ্বন্দে ফেলে দেয়। প্রায় অবোধ্য, কিন্তু শক্তিশালী এক প্রতীকের জগত […]
Shares