এডনা সেন্ট ভিনসেন্ট মিল্যে | মুম রহমান

এডনা সেন্ট ভিনসেন্ট মিল্যে | মুম রহমান

🌱

এডনা সেন্ট ভিনসেন্ট মিল্যে প্রথম পুলিৎজার পুরস্কার জয়ী নারী। তিনি কবিতায় ও ব্যক্তি জীবনে বিস্ময়কর রকমের সাহসী ও ব্যতিক্রমী ছিলেন। তিনি সে সময়েই প্রকাশ্যে উভলিঙ্গগামী ছিলেন, একাধিক নারী ও বিবাহিত পুরুষের সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিলো। তিনি বিয়ে করার সময়ও স্বামীর সঙ্গে এই মতে এসেছিলেন যে যখন যার খুশি তার সাথে সহবাস করতে পারবে। তার কাব্যগ্রন্থ ‘আ ফিউ ফিগস ফ্রম থ্রিসল’ (১৯২০) নারীর যৌনতা মহিমাকে বিষয়বস্তু হিসেবে তুলে ধরার জন্যে তীব্রভাবে সমালোচিত হয়। তার কবিতার অন্যতম বিষয়বস্তু ছিলো পুরুষ চাইলে নারী শরীর ব্যবহার করতে পারবে, কিন্তু তার উপর অধিকার বা শাসন খাটাতে পারবে না।

পাতা ও গাছ

কবে তুমি শিখবে, আমার আপন আমি,
একটা জীবিত গাছে মৃত পাতা হতে?
স্ফুটনোন্মুখ, উচ্ছ্বসিত, উদ্ভেদী শক্তি,
সবুজ পরিহিত, তবে দীর্ঘায়িত নয়,
পুষ্টি টানছে হাওয়া থেকে,
অন্য পত্রাবলী আর তুমিও নেই সেথায়,
হয়তো বা অঙ্কুরিত হবে, আর শরতের আহ্বান
করবে পিঙ্গল, ঝরে যেতে তৈরি তো তুমি?
এই কা-টি কি নিশানা নয়
ছোট্ট আর কম্পিত তোমার ছদ¥বেশের?
শেষপ্রান্তের শাখাগুলি কি ইশারা নয়
প্রজ্ঞা আর সত্য আরোহনের?
আর এই বিশাল অশনি নিমজ্জিত হয়
দেখে পার্শ্বত এক সোনালী চোখে
এক ঝলকে একটি গাছকে, কী দীর্ঘ আর গর্বিত হয়
পত্রগুলোকে মেঘের ছায়া দিয়ে।

এইখানে, আমি ভাবি, হৃদয়ের আর্তি:
গাছটি, পাতাটির চেয়ে শক্তিশালী নয়,
দৃঢ় করে তার শেকড় আর ছড়ায় তার চূড়া
আর দাঁড়িয়ে থাকে; তবে দিনের শেষে খর্ব হয়।
সেই হাওয়ার শীর্ষ কেউ উঠতে পারবে না সেথায়।

স্বল্প সময়ে নিষ্পেষিত হয়
বাছুরদের দুধ খাওয়ার পথের ধারে।
একটা পাতা সম্ভাব্য উড়–ক্কু ভাবনায় রত,
যে হাওয়াকে শ্রবণ করে আর অপেক্ষা করে তার পালা আসবার
সব কিছুই শেখায় যা একটা গাছ শিখতে পারে।
সময় সেই পেলবতাকে লোহাকাঠ বানাতে পারে।
দীর্ঘতম কা-টি যা সদা দাঁড়িয়েছিলো,
সময়ে, কোন স্বপ্নকেই না পুষে রেখে,
হামাগুড়ি দেয় শেকড়ের পাশে নিদ্রার তরে।

প্রথম ডুমুর

মম মোমবাতি দুইপ্রান্ত থেকে জ্বলে;
সে পুরো রাত টিকিবে না;
তবু আহ, শত্রুরা মোর, তবু ওহে, বন্ধুরা মোর –
সে বড় মনোরম আলো দেয়।

দ্বিতীয় ডুমুর

কঠিন শিলার উপরে নিরাপদে দাঁড়িয়ে আছে কদাকার বাড়িখানা :
আসুন এবং দেখে যান বালির উপর বানানো আমার চকচকে প্রাসাদখান!

🔅🔅🔅🔅

অনুধ্যান

Leave a Reply

Next Post

ডরোথি পার্কার | মুম রহমান

Sun Sep 20 , 2020
ডরোথি পার্কার | মুম রহমান 🌱 মার্কিন কবি, কথাকার, সমালোচক ডরোথি পার্কার (১৮৯৩-১৯৬৭) যথার্থ অর্থেই বহুমূখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন। বৈরী পরিবেশ আর অসুখি শৈশব পেরিয়ে তিনি সফল হয়েছিলেন। দ্য নিউ ইয়র্কারের মতো পত্রিকা নিয়মিত লিখতে তিনি। হলিউডে চিত্রনাট্য লিখেছেন। দুইবার অস্কার নমিনেশনও পেয়েছিলেন। কিন্তু কমিউনিজমের সঙ্গে সংযুক্তি থাকার অভিযোগে তাকে […]
Shares